বাংলা ধাঁধাঁ ও মজার উত্তর ২০১৯-২০


 বিসমিল্লাহির রাহমানির  রাহিম। 
বাংলা  ধাঁধাঁ  ২০১৯

ছয় পা বারো হাঁটু, জাল ফেলেছে। মাছ নেই জল নেই, ডাঙাতেই থেকেছে।\দ



উত্তর: মাকড়শা।



চলতে চলতে তার চলা হয় ভার, আজব জিনিস মাথাটি কাটলে চলবে আবার।



উত্তর: পেন্সিল।



খেয়ালে ভোজন, ধ্যানে করে স্নান।দদ একসঙ্গে তিন কাজ, করে কোনজন......?



উত্তর: মাছরাঙা।



খাই কিন্তু দেখি নাই, খেয়ে খেয়ে মজা পাই।\n



উত্তর: বাতাস।



খুব ভোরেতে পাবে তাকে, সন্ধ্যে বেলায়ও পাবে। উপর থেকে দেখলে পরে, পড়বে তোমার চোখে।



উত্তর: শুকতারা।



চার বর্ণে ফলের নাম, সামনের তিনটি কেটে দিলে প্রয়োজনীয় একটি পানীয় হয়।



উত্তর: করমচা।



চার বর্ণের দেশ যে, খেলাধুলা করে। শেষের দুই বর্ণ বাদ দিলে তার থেকে জল পড়ে।



উত্তর: কলম্বিয়া।



আকাশ থেকে পড়ল গোটা তার মধ্যে রউ (রক্ত) যে না বলতে পারে সে পাগলের বউ।



উত্তর: কালো জাম।



উপরে তিতা ভিতরে মিঠা লেবুর দলে বাস। এই কথাটি বলতে গেলে লাগে তিন মাস।



উত্তর: জাম্বুরা।



উল্টে যদি দাও মোরে\n হয়ে যাব লতা কে আমি ভেবে-চিন্তে বলে ফেলো তা।



উত্তর: তাল।



ছোট্ট একটা ঘরের মধ্যে সাতটা বাড়ি যে না বলতে পারে তার সঙ্গে আড়ি।



উত্তর: চালতা।



বাগান থেকে আসল বুড়ি থালায় দিল প্রসাব করি



উত্তর: লেবু।



এতটুকু ঘর চুনকাম করা কোনো মিস্ত্রির সাধ্য নাই ভেঙে আবার গড়া।



উত্তর: ঝিনুক।



তিন অক্ষরে নাম তার, মাঝের অক্ষর কেটে দিলে হয় রং। শেষের অক্ষর কেটে দিলে কঠোর পরিশ্রম।



উত্তর: কাজল।



জিনিসটার এমন কী গুণ  টাকা করে দেয় দ্বিগুণ?ড়



উত্তর: আয়নার সামনে টাকা ধরুন।



একজন হাসে, একজন ভাসে একজন মাটিতে থাকে বসে।



উত্তর: শাপলা, ডাটা বা লাইল ও শামুক। ।



লক্ষ বছর ধরে থাকলেও এটিকে একটানা এক মাসের বেশি দেখি যায় না।



উত্তর: চাঁদ।



তোমাকে শুকিয়ে নিজে সে ভিজে উত্তরটা বলো দেখি/ চেষ্টা করে নিজে?



উত্তর: টাওয়েল বা গামছা।



ঘাড় আছে, মাথা নেই ভেতরেরটা পেয়ে গেলেই ফেলে দিই? বলো তো কী?



উত্তর: বোতল।



মানুষের পাঁচ আঙুল থেকেও নেই প্রাণ  বল তো জিনিসটার কী নাম?



  উত্তর: মুজা/দস্তানা।



বেড়ে যদি যায় একবার কোনোভাবেই কমে না আর?



উত্তর: মানুষের বয়স।



নয়া জামাই গোছল করে কোন সে বাপের ছা? শত কলসি পানি  ঢাললেও ভেজে না তার গা।



উত্তর: কচুপাতা।



বন থেকে বাহির হয় ওঝা পাছায় লাঠি মাথায় বোঝা। এইটা কি?



উত্তর: আনারস।



শুভ্রবাসান দেহ তার, করে মানুষের অপকার। চিতায় তারে পুড়িয়া মারে, তবু সে উহ আহ না করে।



উত্তর: সিগারেট।



দুই অক্ষরের নাম তার পৃথিবীতে থাকে। শেষের অক্ষর বাদ দিলে, সেই নামেই ডাকে!



উত্তর: কা কা।



গাছে নাই, পাতায় নাই। ফুলে আছে, ফলে আছে।



উত্তর: ল বর্ণ।



শুঁড় দিয়া কাজ করি, নাহি আমি হাতি। পরহিতে খাটি সদা, তবু খাই লাথি।



উত্তর: ঢেঁকি।



তিন অক্ষরে নামটি তার আছে সবার ঘরে, প্রথম অক্ষর কেটে দিলে খেতে ইচ্ছে করে, মাঝের অক্ষর উড়ে গেলে বাজে সুরে সুরে।



উত্তর: বিছানা।



তিন বর্ণে নাম তার পুস্প কুরে বাস, দুয়ে তিনে হের মোরে ফরেতে প্রকাশ এ তিনে যাহা পাও তারে খেরে সবে, বরো দেখি কোন নামে চলি ভবে।



উত্তর: বকুল ফুল।



মুখেতে খেলে চুমু হাসে খল খল পেটের মাঝে শুধু জল করে ছল ছল ।



উত্তর:১৯। হুক্কা



বেটির নাম পার্বতী নাচতে নাচতে গর্ভবতী ।



উত্তর:১৮। নাটাই সুতা



গলা জরিয়ে আসে রসিক যুবতী কোমরে বসায়ে সমতনে বসতি ।



উত্তর: ১৭। কলসি



শুইতে গেলে দিতে হয়  না দিলে ক্ষতি হয় ।



উত্তর:১৬। দরজার খিল



জামাই এল কাজে বলতে পারিনা লাজে, আমার একটু কাজ আছে দুই ঠ্যাঙয়ের মাঝে ।



উত্তর:১৫। গাই দোহান



দৌড়িয়ে গিয়ে জরিয়ে ধরে করছে টানাটানি মধ্যখানে খিল মেরেছে ভিতরে পড়েছে পানি ।



উত্তর:১৪। খেজুর গাছ থেকে রস পড়া



চিৎ করে ফেলে উপর করে এমন করা করে, গহ্না শুদ্ধ নড়ে ।



উত্তর:১৩। গয়না পড়ে শীল পাটায় মসলা বাটা



এটার ভিতর ওটা দিয়া দুজনে রয় শুইয়া\n বাইরের লোকে যত ঠেলে , মুখটি মোটে নাহি খোলে ।



উত্তর:১২। দরজার খিল



পাচ বেটায় ধরে, বত্রিশ বেটায় করে এক বেটা ধাক্কিয়ে নেয় ঘরে ।



উত্তর:১১। ভাত খাওয়া



হাত আছে পা আছে মাথা তার কাটা আস্ত মানুষ গিলে খায় বুক তার ফাটা ।



উত্তর:১০। শার্ট



দুই ঠ্যাং ছড়াইয়া, মাঝে দিল ভরিয়া আপন কাজ করিয়া, পড়ে দেয় ছাড়িয়া ।



উত্তর:৯। যাতি দ্বারা সুপারি কাটা



ফুটোর মধ্যে দিয়ে ফাটা, নড়েছরে পড়ে আঠা, বল, কি বুঝেছিস বেটা?\



উত্তর:৮। দোয়াত, কলম কালি



বুড়োদের ন’বার ছ’বার ছোকরাদের একবার ।



উত্তর:৭। সুই সুতা পরান



ঘসা দিলে মিটে আশা নইলে পড়ে সব নিরাশা ।



উত্তর:৬। ম্যাচ



আইছি কাজে, কইনা লাজে, আছে দুই লরা তার মাঝে ।



উত্তর:৫। গাভির দুধ



ঢোকেনা, তবুও ঢোকাও কেন পরের মেয়ে কাদাও, পারলে উত্তর দাও?



উত্তর:৪। হাতের চুড়ি



বিয়ের সময় দাদা দেয় একবার সারাজীবন বৌদি দেয় দেয় বারবার ।



উত্তর:৩। সিঁদুর



অল্প দিলে ভাল লাগেনা, বেশি দিলে বিষ শাশুড়ি বলে বৌকে আন্দাজ মত দিস । 



উত্তর:১। লবণ



কোন ড্রেস পৃথিবীর সবার আছে কিন্তু কেউ গায়ে পড়েনা। বলুন দেখি,,,?



উত্তরঃ এডড্রেস।



ফুটোর মাঝে ডুকিয়ে নাড়াচাড়া করে কখনো বোজে, কখনো খুলে থাকে ঘরে ।



উত্তর:। তালাচাবি











tag+:; bangla koutuk, dada, বাংলা ধাধা,  বোকা বানানোর ধাধাা,


EmoticonEmoticon